সিমের মালিকানা পরিবর্তন করবেন যেভাবে - How To Change Ownership Of Any Sim

আসসালামু আলাইকুম! আজকের পর্বে আপনাদেরকে দেখাবো সিমের মালিকানা কিভাবে পরিবর্তন করবেন। এর আগে একটা পর্বে আপনাদেরকে দেখাইতে বিকাশ এর মালিকানা কিভাবে পরিবর্তন করতে হয়। তো ভাবলাম সিমের মালিকানা কিভাবে পরিবর্তন করতে হয় এটা নিয়ে একটা ব্লগ আপনাদের সাথে শেয়ার করি। তারই ধারাবাহিকতায় আজকের এই ব্লগে আপনাদেরকে আমি বিস্তারিত ক্লিয়ার করে দিবো যে কিভাবে সিমের মালিকানা পরিবর্তন করবেন এবং সিমের মালিকানা পরিবর্তন করতে আপনার কি কি ডকুমেন্টস লাগবে এবং কোনো টাকা পয়সা লাগবে কিনা, সাথে সিমের মালিকানা পরিবর্তন করতে আপনার কি কি করা লাগবে। সবকিছু আজকের ভিডিওতে আমি একদম ক্লিয়ার করে দিবো। 



ধরুন আপনার একটা সিম আপনার আব্বু আম্মু অথবা অন্য যে কারো ভোটার আইডি কার্ডের মাধ্যমে আপনি রেজিস্ট্রেশন করেছেন অথবা সিমটা কিনেছেন, এখন আপনার ভোটার আইডি কার্ড হয়েছে আপনি চাচ্ছেন আপনার ভোটার আইডি কার্ডের মাধ্যমে আপনার সিম টা কে রেজিস্ট্রেশন করতে। বা সিমের মালিকানা পরিবর্তন করতে। অর্থাৎ তার আইডি কার্ড থেকে সিমটা আপনার আইডি কার্ডে নিয়ে আসতে চাচ্ছেন। সিমের মালিকানা কিভাবে পরিবর্তন করবেন কোন কোন ডকুমেন্ট লাগবে কত টাকা লাগবে কাকে কাকে সাথে নিয়ে যাইতে হবে, বিকাশের হেড অফিসে যাওয়া লাগবে নাকি অন্য কোথাও থেকে করতে পারবেন, সবকিছু আজকের এই ব্লগে থাকছে! তো চলুন এখন মূল কথায় ফিরে যাই।


ধরুন আপনার বাবার নামে রেজিস্ট্রেশন করা আছে আপনার সিম টা এখন আপনি চাচ্ছেন আপনার বাবার নাম থেকে আপনার নামে সিম টাকে রেজিস্ট্রেশন করতে বা মালিকানা পরিবর্তন করতে।

আপনার বাবার যে যে ডকুমেন্ট লাগবে।


১। আপনার বাবার পাসপোর্ট সাইজের এক কপি ছবি লাগবে।

২। আপনার বাবার অরজিনাল জাতীয় পরিচয় পত্র (ভোটার আইডি কার্ড) লাগবে।

৩. আপনার বাবার অরজিনাল জাতীয় পরিচয় পত্র (ভোটার আইডি কার্ড) এর এক কপি ফটোকপি লাগবে।


আপনার বাবার নাম থেকে আপনার নামে আপনার সিমের মালিকানা পরিবর্তন করার জন্য উপরের ডকুমেন্টগুলো অবশ্যই আপনার বাবার থাকা লাগবে এবং সাথে নিয়ে যাইতে হবে এবং উপরের ডকুমেন্টগুলো অবশ্যই সঠিক হতে হবে।



আপনার যে যে ডকুমেন্ট লাগবে।


১। আপনার ২ কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি লাগবে।

২। আপনার অরিজিনাল জাতীয় পরিচয় পত্র (ভোটার আইডি কার্ড) লাগবে।

৩। আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র (ভোটার আইডি কার্ড) এর এক কপি ফটোকপি লাগবে।

৪। সাথে ৫০ থেকে ১০০ টাকা নিয়ে যাবেন! টাকা লাগতেও পারে, নাও লাগতে পারে।



সিমের মালিকানা পরিবর্তন করতে উপরে যে ইনফর্মেশন গুলো দিয়েছি এগুলো অবশ্যই আপনার সাথে করে নিয়ে যেতে হবে এবং সিমটা বর্তমানে যার নামে রেজিস্ট্রেশন করা আছে তাকে অবশ্যই সাথে করে নিয়ে যেতে হবে। কারণ তার ফিঙ্গারপ্রিন্ট ছাড়া আপনার সিমের মালিকানা কোনভাবেই পরিবর্তন করতে পারবেন না। অবশ্যই তাকে সাথে করে নিয়ে যেতে হবে এবং যদি আপনি আপনার নামে রেজিস্ট্রেশন না করে অন্য কারো নামে রেজিস্ট্রেশন টা পরিবর্তন করতে চান, তাহলে অবশ্যই বর্তমানে যার নামে আছে এবং ভবিষ্যতে যার নামে রেজিস্ট্রেশন টা পরিবর্তন করতে চাচ্ছেন দুজনকে যেতে হবে এবং উপরে যে ডকুমেন্টগুলো বলেছি এগুলো অবশ্যই সাথে নিয়ে যেতে। 



এখন কথা হলো সিমের মেইন অফিসে যেতে হবে, নাকি যেসব দোকানে সিম বিক্রি করে এইসব দোকানে গেলেও হবে? আপনি চাইলে সিমের মেইন অফিসে গিয়েও আপনার মালিকানা পরিবর্তন করতে পারবেন! এবং আপনি যদি চান আপনার আশেপাশে যেসব দোকানে সিম বিক্রি করে রেজিস্ট্রেশন করে সেই সব দোকান থেকেও আপনি আপনার সিমের মালিকানা পরিবর্তন করতে পারবেন। 


উপরে যে ডকুমেন্টগুলোর কথা বল্লাম এই ডকুমেন্টগুলো প্রত্যেকটা সিমের ক্ষেত্রে একই রকম! আপনি: বাংলালিংক ,গ্রামীনফোন, এয়ারটেল, রবি, টেলিটক, প্রত্যেকটা সিম এর ক্ষেত্রে এই একই ডকুমেন্ট দিয়ে আপনি আপনার সিমের মালিকানা পরিবর্তন করতে পারবেন। 



আশা করতেছি আজকের এই ব্লগে আমি আপনাদেরকে বিস্তারিত বুঝাইতে পারছি যে, কিভাবে যেকোন সিমের মালিকানা পরিবর্তন করবেন এবং কোথা থেকে করবেন এবং সিমের মালিকানা পরিবর্তন করতে আপনার কত টাকা লাগতে পারে, আশা করছি এই বিষয়টা আপনাকে একদম ক্লিয়ার করতে পারছি।‌ আজকের এই ব্লগটা যদি আপনাদের ভালো লেগে থাকে এবং এতোটুকু উপকারে এসে থাকে: তাহলে অবশ্যই আপনার বন্ধুদের সাথে আমার ব্লগটা শেয়ার করতে পারেন এবং আমাদের সাইটে আপনাকে আবারও আসার জন্য আমন্ত্রণ রইল!! ধন্যবাদ।

5 মন্তব্য

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Post a Comment

অপেক্ষাকৃত নতুন পুরনো